জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষা না হওয়ার ইঙ্গিত দিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী

জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষা না হওয়ার ইঙ্গিত দিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী এ বছরও,,,, করোনা মহামারির কারণে দুই বছর আগের মতো এ বছর জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) ও জুনিয়র এন্ট্রি সার্টিফিকেট (জেডিসি) পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়নি। দীপু মনি। তিনি বলেন, "মনে হচ্ছে জেএসএসি-জেডিসি পরীক্ষা খুব কঠিন হবে। কারণ শিক্ষা বোর্ডগুলো ব্যস্ত থাকবে এসএসসি-এইচএসসি পরীক্ষা ও ফলাফল নিয়ে। তবে পরীক্ষা হবে কি না, সে বিষয়ে এখনো সিদ্ধান্ত হয়নি।

জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষা না হওয়ার ইঙ্গিত দিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী

মঙ্গলবার (১২ এপ্রিল) দুপুরে মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে ‘এসএসসি ও সমমান এবং ২০২৩ সালের এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষার পাঠ্যক্রম’ শীর্ষক এক প্রেস ব্রিফিংয়ে তিনি এ মন্তব্য করেন।
সংবাদ সম্মেলনে এক প্রশ্নের জবাবে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, "অনেক যৌক্তিক বিষয় দেখতে হবে। এবারের এসএসসি জুনে এবং এইচএসসি আগস্টে হওয়ার কথা। এইচএসসি যদি আগস্টে হয়... এখন। জেএসএসি-জেডিসি পরীক্ষা নেওয়া খুব কঠিন হবে বলে মনে হচ্ছে।কারণ শিক্ষা বোর্ডগুলো ব্যস্ত থাকবে এসএসসি-এইচএসসি পরীক্ষা ও ফলাফল নিয়ে।তবে পরীক্ষা হবে কি না তা এখনো ঠিক হয়নি।
তিনি বলেন, তাহলে আমরা বলতে পারি এবার জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষা হচ্ছে না। আর কিছুক্ষণ পর সিদ্ধান্ত হবে। সামনে এসএসসি-এইচএসসি পরীক্ষা আছে, লজিস্টিক বিষয়গুলো দেখে যদি মনে করেন কঠিন হলেও করা যাবে, তাহলে হয়তো নেওয়া যেতে পারে। তবে আমি আরও দেড় মাসের মধ্যে এই সিদ্ধান্ত নিতে চাই। '

২০২৩ সালের নতুন কারিকুলামে জেএসসি পরীক্ষা নেই। আর করোনার কারণে গত দুই বছরে জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষা নেওয়া হয়নি। এ অবস্থায় এ বছর পরীক্ষা নেওয়া কতটা গুরুত্বপূর্ণ জানতে চাইলে দীপু মনি বলেন, "সে অর্থে খুব একটা গুরুত্বপূর্ণ নাও হতে পারে। তারপরও পরিস্থিতি বিবেচনা করে সিদ্ধান্ত জানানো হবে। যত দ্রুত সম্ভব সিদ্ধান্ত ঘোষণা করা হবে। .
সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত হয়ে ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যানের নিয়মিত দায়িত্বে থাকা তপন কুমার সরকার বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, "এ বছর জেএসসি পরীক্ষা হওয়ার সম্ভাবনা নেই। কারণ এইচএসসি পরীক্ষা আগস্টে শুরু হয়ে শেষ হবে। সেপ্টেম্বর। পাবলিক পরীক্ষা দিতে তিন থেকে চার মাস প্রস্তুতি লাগে। এছাড়া জেএসসিতে অনেক পরীক্ষার্থী রয়েছে। সেজন্য জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষা দেওয়ার সম্ভাবনা খুবই কম।'