তাদের বহুবার মৃত্যুদণ্ড দেওয়া উচিত ছিল

সোমবার চার গণতন্ত্রপন্থি আন্দোলনকর্মীর মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করে মিয়ানমার

তাদের বহুবার মৃত্যুদণ্ড দেওয়া উচিত ছিল

আন্তর্জাতিক সমালোচনা ও নিন্দাকে উড়িয়ে দিয়ে মিয়ানমার বলেছে, যাদের মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয়েছে তারা আরও অনেকবার মৃত্যুদণ্ড দেওয়া উচিত ছিল। মঙ্গলবার মিয়ানমারের সামরিক জান্তা সরকারের মুখপাত্র জ মিন  তুন এ কথা বলেছেন।

সোমবার চার গণতন্ত্রপন্থি আন্দোলনকর্মীর মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করে মিয়ানমার। কয়েক দশকের মধ্যে এবারই প্রথম মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হলো দেশটিতে। এ ঘটনার তীব্র সমালোচনা করেছে বিভিন্ন দেশ ও জাতিসংঘ। এই দেশগুলো জান্তার বিরুদ্ধে কঠোর আন্তর্জাতিক ব্যবস্থা নেওয়ার আহ্বান জানিয়েছে।

মুখপাত্র জাও মিন তুন মঙ্গলবার বলেছেন, ‘আদালতের পদ্ধতি অনুসারে সাজাপ্রাপ্তদের আত্মরক্ষা করার অধিকার দেওয়া হয়েছিল। যদি আমরা অন্যান্য মৃত্যুদণ্ডের মামলার সাথে তাদের সাজা তুলনা করি, তাহলে তারা এমন অপরাধ করেছে যার জন্য তাদের বহুবার মৃত্যুদণ্ড দেওয়া উচিত ছিল। তারা অনেক নিরাপরাধ মানুষের ক্ষতি করেছে। এমন অনেক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে যা পূরণ করার মতো নয়।’

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্তদের মধ্যে মিয়ানমারের ক্ষমতাচ্যুত নেতা অং সান সু চির দলের এক জন আইনপ্রণেতাও ছিলেন। মৃত্যুদণ্ড কার্যকরের তাকে ভিডিও কলে পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে কথা বলার সুযোগ দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন মিন তুন।