বড় আশা ওয়ানডেতে দু:শ্চিন্তা টেস্ট নিয়ে

দক্ষিণ আফ্রিকার মাটিতে ওয়ানডে সিরিজ জিতে হৈ চৈ ফেলা দেওয়া বাংলাদেশ হরে বসে টেস্টে। বিধ্বস্ত হয়ে প্রোটিয়াদের কাছে ধরাশায়ি হয় মুমিনুল বাহিনী। তবে ওয়ানডে অধিনায়ক তামিম ইকবাল মনে করেন, পেসারদের ধারাবাহিকতা আর তরুনদের ঘুরে দাড়ানো অব্যাহত থাকলে আসন্ন শ্রীলংকা সিরিজে আশা দেখতেই পারে বাংলাদেশ। তামিম গুরুত্ব দিচ্ছেন মেহেদি মিরাজ-আফিফদের মতো তরুনদের। তারা ভালো করলে বড় প্রত্যাশা অপেক্ষা করছে। তবে টেস্ট ব্যর্থতা নিয়ে চিন্তিত তিনি। তামিম মনে করছেন, বোর্ডের টেস্ট নিয়ে এখনই বড় পদক্ষেপ নেওয়া উচিত। ক্রীড়া বিষয়ক সংবাদ মাধ্যম ইএসপিএন ক্রিকইনফোকে দেওয়া সাক্ষাতকারে তামিম এ সব কথা বলেন।

বড় আশা ওয়ানডেতে দু:শ্চিন্তা টেস্ট নিয়ে

তামিম বলেন, ‘দক্ষিণ আফ্রিকার মাটিতে ওয়ানডে জেতা বড় কিছু। আমাদের সবচেয়ে বড় অর্জনগুলোর একটি। কিন্তু মনে কষ্ট থেকেই গেছে। কারণ টেস্ট সিরিজ যেমন গেছে, তাতে ওয়ানডে জয়ের আনন্দ ধূসর হয়ে গেছে।’

তামিম জানান, সাকিব-মুশফিকের জন্য তার খারাপ লাগেনি। খারাপ লেগেছে মেহেদি মিরাজ, তাসকিন আহমেদ, শরিফুল ইসলামদের মতো তরুণদের জন্য। যারা ওয়ানডে সিরিজে খুবই ভালো খেলেছে। কিন্তু টেস্টে বিধ্বস্ত হওয়ার কারণে ভালো করে উদযাপন করতে পারেনি। তবে ওয়ানডে অধিনায়ক মনে করেন, লিটন, শরিফুল, ইয়াসিররা এভাবে পারফরম্যান্স করতে থাকলে ওয়ানডে ফরম্যাটে বাংলাদেশ খুব, খুবই ভালো দল হয়ে উঠবে।

তামিমের মতে, ওয়ানডে দলে অনেক প্রতিযোগিতা। একই রকম প্রতিযোগিতা টেস্টে শুরু হলে বদলে যাবে লাল বলের ক্রিকেটও, ‘ওয়ানডে ক্রিকেটে আমরা অনেক ম্যাচ জয়ের স্বাদ পাচ্ছি। দলে জায়গার জন্য অনেক লড়াই। এটা দল হিসেবে উন্নতি করতে সহায়তা করছে। টেস্ট এবং টি-২০তে ওই সাফল্য আমরা পাচ্ছি না। মাউন্ট মঙ্গানুইয়ে যে ঘটনা ঘটেছে (টেস্ট জয়) ওমনটা ঘটতে থাকলে টেস্টে ক্রিকেটাররাও বুঝবে কোথায় উন্নতি দরকার।’

দক্ষিণ আফ্রিকায় ওয়ানডে সিরিজ জয় নিয়ে তামিম জানান, সিরিজে ভালে শুরু করা দলের মোমেন্টাম সেট করে দেয়। যেটা বাংলাদেশের জন্য আরও গুরুত্বপূর্ণ, ‘ব্যাটিং হোক কিংবা বোলিংয়ে ভালো শুরু করলে টিউন সেট হয়ে যায়। আমাদের জন্য এটা আরও গুরুত্বপূর্ণ। ওখানকার উইকেট এমন হবে, ওমন হবে সিরিজের আগে এমন অনেক কিছু শোনা গিয়েছিল। ভালো শুরু করা তাই দরকার ছিল। ৯৫ রানের ওপেনিং জুটি ওই শুরুটা দিয়েছিল আমাদের।’

এছাড়া ওয়ানডে অধিনায়ক তামিম মনে করেন, মেহেদি মিরাজ ওয়ানডে দলের সেরা ক্রিকেটার। কিন্তু খুব বেশি আন্ডাররেটেড, ‘মিরাজ আমাদের অন্যতম সেরা ওয়ানডে ক্রিকেটার। আইসিসি’র বোলিং র‌্যাংকিংয়ে সে তিন-চারে (অষ্টম) আছে। কেউ তার কথা বলে না। ব্যাটার হিসেবে সে উন্নতি করছে। আরও ভালো করতে পারলে সাকিব এবং মিরাজ আমাদের দলকে অনেক এগিয়ে দেবে।