শূন্যে উড়ে রানআউট করে ম্যাক্সওয়েল ভিডিও তাক লাগালেন

শিকারী পাখির মতন গ্লেন ম্যাক্সওয়েল! ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে (আইপিএল) অবিশ্বাস্য রান আউটে হতবাক হয়েছিলেন অসি তারকা। তাকে নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় চলছে তুমুল আলোচনা। বিয়ের জন্য আইপিএলের চলতি আসরে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোরের (আরসিবি) প্রথম ৩টি ম্যাচ খেলতে পারেননি ম্যাক্সওয়েল। অবশেষে শনিবার রাতে (৯ এপ্রিল) চতুর্থ ম্যাচে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের বিপক্ষে নামবেন অস্ট্রেলিয়ান অলরাউন্ডার।

শূন্যে উড়ে রানআউট করে ম্যাক্সওয়েল ভিডিও তাক লাগালেন

ম্যাক্সওয়েলের জন্ম মাঠেই। সেদিন মুম্বাইয়ের বিপক্ষে বল করেননি তিনি। তবে যতটা সম্ভব ফিল্ডিং ও ব্যাটিংয়ে কোনো কসরত রাখেননি এই তারকা ক্রিকেটার। তিনি আবারও তার ফিল্ডিং দক্ষতার উপর বাজি ধরলেন। এক কথায় ব্যাটিং অলরাউন্ডার তিলক বর্মার দ্রুত রান আউট হওয়া ম্যাক্সওয়েলের অনবদ্য।

পুনের মহারাষ্ট্র ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন মাঠে টস জিতে মুম্বাইকে ব্যাট করতে পাঠান বেঙ্গালুরু অধিনায়ক ফাফ ডু প্লেসিস। রোহিত-ঈশান কিষানের উদ্বোধনী জুটি মুম্বাইকে ভালো সূচনা এনে দেয়। 15 বলে 27 রান করে অধিনায়কের বিদায়ের পর, কিষাণও 26 বলে 28 রানের একটি শামুক-প্রবণ ইনিংস নিয়ে ফিরে যান।

এরপর মুম্বাই দ্রুত ৬ উইকেট হারিয়ে ১৫১ রানে পৌঁছে যায় মূলত সূর্যকুমার যাদবের দুর্দান্ত ইনিংসের কারণে। মাত্র ৩৬ বলে ৭ রানের ইনিংস খেলেন সূর্যকুমার।
সেদিন ব্যাট হাতে কিছুই করতে পারেননি দক্ষিণ আফ্রিকার বিখ্যাত 'বেবি এবি' ব্যাটসম্যান দাওয়াল্ড ব্রাভিস। ১১ বলে ৬ রান করে হাসারাঙ্গার শিকার হন। আরেক ডেঞ্জারম্যান কাইরন পোলার্ডকেও ফিরিয়েছেন শ্রীলঙ্কার এই রহস্যময় বোলার। প্রথম রানেই গোল্ডেন কল ফিরিয়ে দেন পোলার্ড।

আর মুম্বাইয়ের হয়ে দুর্দান্ত ফর্মে থাকা তিলককে পাঁচ মিনিটের বেশি ক্রিজে থাকতে দেননি ম্যাক্সওয়েল। অজি তারকা তিলককে সরাসরি আঘাত করে রান আউট করেন। আকাশ দীপের বল ট্যাপ করে সিঙ্গেল চুরি করতে চেয়েছিলেন তিলক। কিন্তু ম্যাক্সওয়েল তার ইচ্ছা পূরণ হতে দেননি। একেবারে শিকারি পাখির মতো উড়ে এসে বাতাসে ভাসিয়ে দিল তিলককে। এদিন তিলককে খালি হাতে ফিরতে হয়।

ম্যাক্সওয়েলের ফিটনেস কতটা উচু তা দেখে বোঝা যায় সামনের দিকে শরীর ছুড়ে দিয়ে তিলক রান আউট হয়েছিলেন।

ব্যাঙ্গালোরের 152 রানের জবাব দিতে বেশি সময় লাগেনি। ফাফ ডু প্লেসিস ও অনুজ রাওয়াত প্রথম ওভারে ৫০ রান তোলেন। নবম ওভারের প্রথম বলেই আউট হন ফাফ ডু প্লেসিস।
তবে ব্যাট হাতে দারুণ খেলছিলেন আরেক ওপেনার অনুজ রাওয়াত। বিরাট কোহলি উইকেটে এসে তার সঙ্গে ব্যাটিং চালিয়ে যান। দুজনে রান করতে থাকেন। ১৬.৫ ওভারে ১৩০ রানে দ্বিতীয় উইকেট হারায় ব্যাঙ্গালুরু। রান আউট হন অনুজ রাওয়াত। 48 বলে 6 রান করার পথে 2 চারের সাহায্যে 6 ছক্কাও মারেন এই ব্যাটসম্যান।

রাওয়াতের বিদায়ের পর ব্যাঙ্গালুরুকে জয়ের পথে নিয়ে যাচ্ছিলেন বিরাট কোহলি। কিন্তু জয় থেকে ছয় রান দূরে ৪৮ রানে ডিওয়াল্ড ব্র্যাভিসের শিকার হন ব্যাঙ্গালুরুর সাবেক অধিনায়ক।

তবে জয়টা বেশিক্ষণ থাকতে দেননি ম্যাক্সওয়েল। ব্রাভিসের করা ওই ওভারে পরপর দুটি চারে স্কোর করে ম্যাচে অভিষেক হয় অসি তারকা। আরসিবি ৯ বল হাতে ৮ উইকেটে জিতেছে।